শুক্রবার ২৩শে আগস্ট ২০১৯ |

৯৯৯ এ কখন এবং কীভাবে সাহায্য চাইবেন

 বৃহঃস্পতিবার ১১ই জুলাই ২০১৯ রাত ০৯:৩০:০২
৯৯৯

কাতারে থাকাকালে যে কোনো বিপদ বা দুর্ঘটনা ঘটলে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করতে হয়। এই নম্বরটি যে কোনো সময়ে যে কোনো ধরণের জরুরি সাহায্যের জন্য নির্ধারিত। ফলে নিরাপত্তা বাহিনী বা দমকল কিংবা হাসপাতাল-অ্যাম্বুলেন্স সম্পর্কিত যে কোনো সেবাদাতা ও সাহায্যপ্রার্থীর মধ্যে সংযোগ স্থাপনের একমাত্র উপায় ৯৯৯। এটি পরিচালিত হয়ে থাকে দোহা থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার দূরে দুহাইলে অবস্থিত ন্যাশনাল কমান্ড সেন্টার থেকে। ২০০৬ সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়।

৯৯৯ এ ফোন করে সড়ক দুর্ঘটনা থেকে শুরু করে অসুস্থ ব্যক্তির জন্য সেবা, অগ্নিকান্ড, অপরাধসহ যে কোনো জরুরি বিষয়ে সাহায্য চাওয়া যাবে। দিন ও রাতের ২৪ ঘন্টা একাধিক ভাষায় সেবা দিতে একদল চৌকস ও তৎপর কর্মী ন্যাশনাল কমান্ড সেন্টারে সদা নিয়োজিত রয়েছেন।  

অনেক অভিবাসী এই নম্বরে ফোন করে সড়ক দুর্ঘটনা বা অগ্নিকান্ড অথবা কোনো বিপদের খবর জানানোর সময় নিজের অবস্থান বা ঘটনাস্থল সঠিকভাবে জানাতে পারেন না। ফলে সাহায্যকারী দল আসতে যেমন দেরি হয়, তেমনিভাবে বিড়ম্বনায় পড়েন সাহায্যপ্রার্থীও। এ ধরণের ভোগান্তি থেকে বাঁচতে হলে সাহায্যপ্রার্থীকে বেশকিছু বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।

৯৯৯ এ ফোন করার পর ওপাশ থেকে যখন ঘটনার বিবরণ সম্পর্কে জানতে চাওয়া হবে, তখন স্পষ্টভাবে এর বিবরণ জানাতে হবে। অস্পষ্ট বর্ণনা বা অসম্পূর্ণ কিংবা ভুল তথ্য দেওয়ার ফলে অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। এর ফলে জরুরি সেবা নিয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হতে প্রয়োজনের চেয়ে বেশি সময় লেগে যেতে পারে।

৯৯৯ এ ফোন করার আগে অবশ্যই ঘটনাস্থলের সঠিক অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হতে হবে। এর ফলে দ্রুততম সময়ে সাহায্যকারী দল সেখানে এসে পৌঁছাতে পারে। যেমন, কোনো বাসায় যদি দুর্ঘটনা ঘটে, তবে সেক্ষেত্রে বাসা যে এলাকায় অবস্থিত ওই এলাকার নাম, সড়ক নম্বর এবং ভবনের নম্বর সম্পর্কে তথ্য জানাতে হবে। আর যদি সড়ক দুর্ঘটনা বা অন্য কোনো উন্মুক্ত স্থানে দুর্ঘটনা ঘটে, তবে ঘটনাস্থলের আশপাশে চোখে পড়ার মতো নির্দিষ্ট ভবন বা উঁচু আলামত থাকলে তা জানাতে হবে।

অনেকে সাধারণ তথ্য জানতে ৯৯৯ এ ফোন করেন, এটি মোটেও উচিত নয়। কারণ, এই নম্বরটি কেবলমাত্র জরুরি অবস্থায় বা বিপদে জরুরি সাহায্য চাওয়ার জন্য নির্ধারিত। অপ্রয়োজনীয় বা জরুরি নয়, এমন বিষয়ে ৯৯৯ এ ফোন করলে অন্য কোনো জরুরি সাহায্যপ্রার্থীর সেবা পাওয়ার বেলায় বিঘœ হতে পারে।

পরিবারের ছোট সদস্যরা যেন অযথা ৯৯৯ নম্বরে ডায়াল না করে, সেদিকে লক্ষ্য রাখা পরিবারের কর্তার অবশ্য কর্তব্য। কারণ, এর ফলে কলসেন্টার যেমন ব্যস্ত হয়ে পড়ে, তেমনিভাবে তা অন্য কারও সেবা পেতে বিলম্বের কারণ হতে পারে।

সাধারণ ঘটনা হলে একবারের পর দ্বিতীয়বার ৯৯৯ এ ফোন করার প্রয়োজনীয়তা নেই। কারণ, ঘটনার জরুরি অবস্থা অনুযায়ী ন্যাশনাল কমান্ড সেন্টার অবশ্যই পদক্ষেপ নেবে। ফলে দ্বিতীয়বার ফোন করে লাইনটি ব্যস্ত রাখা অর্থহীন।

যারা শ্রবণ প্রতিবন্ধী, তাদের জন্য ন্যাশনাল কমান্ড সেন্টারের বিশেষায়িত নম্বর ৯৯২। এর ফলে সাংকেতিক ভাষায় ভিডিও কলে সাহায্যপ্রার্থীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন ন্যাশনাল কমান্ড সেন্টারের প্রশিক্ষিত সদস্যরা। তাই, পরিবার বা আশপাশের কেউ হলে তাকে ৯৯২ নম্বর সম্পর্কে অবহিত করে রাখা ভালো।

ন্যাশনাল কমান্ড সেন্টারের সঙ্গে যোগাযোগের অন্য নম্বরগুলো হলো, ফোন: ৪৪৫২ ৬৬৬৬, ফ্যাক্স: ৪৪৫২ ৬২০১।

আরও জেনে রাখুন

কফিলের কোম্পানি ছাড়া অন্য কোথাও কাজ করার নিয়ম

কোথায় গাড়ি থামালে কত জরিমানা

নির্মাণ শ্রমিকদের জন্য যা যা করণীয়

হঠাৎ আঘাত পেলে

ফ্রি ভিসার নামে প্রতারণা থেকে সাবধান

পরামর্শ ডেস্ক

সংশ্লিষ্ট খবর