সোমবার ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৯ |

স্টান্টম্যানদের মৃত্যু : সত্যিকার অ্যাকশনে বিপদে স্টান্টম্যানরা

 শনিবার ২৭শে জুলাই ২০১৯ রাত ১১:৩৭:২৭
স্টান্টম্যানদের

সিজিআই বা কম্পিউটার জেনারেটেড ইমেজ দেখে এখন আর দর্শকের মন ভরে না। তাদের চাই মানুষের পারফর্ম করা সত্যিকারের অ্যাকশন দৃশ্য।

গত সপ্তাহে ব্রিটিশ স্টান্ট পারফরমার জো ওয়াটস মাথায় ভীষণ আঘাত পেয়েছেন। ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস ৯-এর শুটিংয়ের সময় ওয়ার্নার ব্রস স্টুডিওতে ঘটেছে এ দুর্ঘটনা। এক ব্যালকনি থেকে ৩০ ফুট নিচে পড়ে জো মাথায় আঘাত পান। দুর্ঘটনার পর দ্রুত হেলিকপ্টারে করে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। খারাপ খবর হলো জো কোমায় চলে গেছেন। এ দুর্ঘটনার কারণে ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস ৯-এর শুটিং বন্ধ হয়ে গেছে। স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা বিভাগ থেকে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

হলিউডে এখন চলছে অ্যাকশন-অ্যাডভেঞ্চারধর্মী যুগ, তাই পেশাদার স্টান্টদেরও কাটছে ব্যস্ত সময়। এমনকি এখন অবস্থা এমন যে ছোট পর্দাতেও পরিচালকরা সিনেমার মতো অ্যাকশন দেখাতে চাইছেন। দর্শকরা আর সিজিআই ও গ্রিন-স্ক্রিন অ্যাকশন দেখতে চান না। তারা মানুষের করা দুঃসাহসী স্টান্ট দেখতে আগ্রহী। এ রকম পরিস্থিতিতে স্টান্টের পরিমাণ এবং জটিলতা বাড়ছে, সেসঙ্গে বাড়ছে স্টান্ট পারফরমারদের ঝুঁকি।

গত সপ্তাহে টরন্টোতে একটি টেলিভিশন সুপারহিরো সিরিজ টাইটান-এর স্পেশাল এফেক্টস কো-অর্ডিনেটর মারা গেছেন। ওয়ার্নার ব্রাসের বিবৃতি থেকে জানা যায়,  ‘স্পেশাল এফেক্টের কিছু প্রস্তুতি চলার সময় দুর্ঘটনায় তিনি মারা যান।’ ওয়ারেন অ্যাপলবাই স্টান্ট টেস্টের সময় একটি গাড়ি থেকে ছিটকে বস্তুর আঘাতে মারা যান। ২০১৭ সালের জুলাইয়ে জর্জিয়ায় দ্য ওয়াকিং ডেড-এর শুটিং চলাকালে  নিহত হন স্টান্ট পারফরমার জন বার্নেকার। তিনি ২০ ফুট উঁচু থেকে লাফ দিয়ে  কংক্রিটের মেঝের ওপর রাখা গদির বদলে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে সরাসরি মেঝেতেই পড়েছিলেন। 

কয়েক মাস আগে স্টান্ট রাইডার জয় হ্যারিস ভ্যানকুভারের রাস্তায় মোটরসাইকেল থেকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে মারা যান। এটি হয়েছিল ডেডপুল ২-এর শুটিংয়ের সময়। তিনি একসময় ছিলেন পেশাদার রোড রেসার। আর সিনেমায় তিনি ছিলেন শিক্ষানবিশ স্টান্ট রাইডার। স্টান্টের চাহিদা অনুযায়ী দুর্ঘটনার দিন হ্যারিস হেলমেট পরতে পারেননি। তাই দ্রুতই তার মৃত্যু হয়। যুক্তরাষ্ট্রের স্টান্ট পারফরমারদের একটি ইউনিয়নের কন্ট্রাক্টস ম্যানেজার রে রড্রিগেজ বলেছেন, ‘সবসময় আরো দুর্ধর্ষ কোনো স্টান্ট করার চাপ থাকে। সবসময় এ চাপ বাড়ছে। আর আমার মনে হয় এটা ঝুঁকির পরিমাণও বাড়িয়ে দিচ্ছে।’ রড্রিগেজ আরো মনে করেন আনুষ্ঠানিক তেমন বিধিমালা না থাকা স্টান্টদের কাজকে অধিক বিপজ্জনক করে তুলছে।

লস অ্যাঞ্জেলেসভিত্তিক স্টান্টমেন’স অ্যাসোসিয়েশন অব মোশন পিকচারের সভাপতি অ্যালেক্স ড্যানিয়েলের মতও একই। তার মতে অতীতের চেয়ে স্টান্টদের কাজে নিরাপত্তার জন্য অনেক প্রযুক্তি যুক্ত হয়েছে, একইসঙ্গে স্টান্টের পরিমাণও বেড়েছে নাটকীয়ভাবে। ‘গত ১০ বছরে আটলান্টায় স্টান্টম্যানের সংখ্যা দুই বা তিন ডজন থেকে হাজারখানেক হয়ে গেছে। কারণ এ এলাকায় এ ধরনের কাজের পরিমাণ অনেক বেড়েছে। সব মিলিয়ে অনেক নতুন এ কাজে আসছেন কিন্তু তাদের যথেষ্ট অভিজ্ঞতা নেই।’

স্টান্টের বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়াতে এখন পেশাদার স্টান্টম্যানের বাইরে  অভিনেতাদেরও মাঠে নামতে হচ্ছে। গত মে মাসে বন্ড ২৫-এর শুটিং করতে গিয়ে পায়ের গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন ড্যানিয়েল ক্রেগ। এজন্য বেশ কিছুদিন ছবির শুটিং বন্ধ ছিল। জ্যামাইকায় একটি দৌড়ানোর দৃশ্য ধারণের সময় আঘাত পেয়েছিলেন ক্রেগ। তাকে যুক্তরাষ্ট্রে ছোটখাটো একটি অস্ত্রোপচারও করতে হয়েছিল। ২০১৭ সালের আগস্টে মিশন : ইম্পসিবল- ফলআউট ছবির শুটিংয়ে গোড়ালি ভেঙেছিল টম ক্রুজের। লন্ডনে ছাদ থেকে ছাদে লাফাতে গিয়ে টম ক্রুজ এ দুর্ঘটনায় পড়েন। এতে ছবির শুটিং বন্ধ ছিল নয় সপ্তাহ এবং এ কারণে ছবি নির্মাণ ব্যয় বাড়ে ৮ কোটি ডলার।  

যুক্তরাষ্ট্রে পেশাদার স্টান্ট আছেন তিন হাজার। কিন্তু তাদের কোনো কেন্দ্রীয় সংগঠন নেই। তবে কয়েক ডজন আঞ্চলিক গ্রুপ নিয়ে আছে দ্য স্টান্টমেন’স অ্যাসোসিয়েশন। যুক্তরাজ্যে অবশ্য অবস্থা কিছুটা ভালো। ব্রিটিশ স্টান্ট রেজিস্টার (বিএসআর) প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭৩ সালে। এটি দুনিয়ার স্টান্টদের সবচেয়ে পুরনো ইউনিয়ন। এ সংগঠনের সদস্য হতে হলে অবশ্যই মার্শাল আর্ট, ঘোড়ায় চড়া, অ্যাক্রোবেটিক পারফরম্যান্স, স্টান্ট ড্রাইভিং জানতে হয়। ব্রিটিশ স্টান্ট রেজিস্টার মনে করে এ ধরনের নিয়ম কঠোরভাবে মানা হয় বলে যুক্তরাজ্যে স্টান্টদের দুর্ঘটনার সংখ্যা অনেক কম।

জো ওয়াটসের দুর্ঘটনাটিকে দুর্ঘটনা হিসেবেই দেখছে বিএসআর। যুক্তরাজ্যে স্টান্টম্যানের সর্বশেষ বড় দুর্ঘটনাটি ঘটেছিল ২০০৯ সালে; হ্যারি পটারে ড্যানিয়েল র্যাডক্লিফের স্টান্ট হিসেবে কাজ করতেন ডেভিড হোমস। শুটিংয়ে একটি ওড়ার দৃশ্যে স্টান্ট করার সময় তিনি মেরুদণ্ডে আঘাত পান এবং তার শরীরের বা পাশ পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে যায়।

ব্রিটিশ সংস্থা হেলথ অ্যান্ড সেফটি এক্সিকিউটিভের মতে, চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্টরা এ ধরনের আঘাত, দুর্ঘটনার কথা অনেক সময় জানান না। ২০১২ থেকে হেলথ অ্যান্ড সেফটি এক্সিকিউটিভ ইংল্যান্ডে স্টান্টম্যানদের দুর্ঘটনার ছয়টি ঘটনা তদন্ত করেছে।

সিনেমাসংশ্লিষ্টরা অবশ্য বলেন স্টান্টে ঝুঁকে থাকবেই। ঝুঁকিমুক্ত হলে সে কাজ আর স্টান্ট থাকে না।

বিনোদন ডেস্ক

সংশ্লিষ্ট খবর