বৃহঃস্পতিবার ১২ই ডিসেম্বর ২০১৯ |
কাশ্মির ইস্যুতে

বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের নাগরিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে বাহরাইন

 মঙ্গলবার ১৩ই আগস্ট ২০১৯ রাত ০২:১৯:১৫
বাংলাদেশ

কাশ্মির ইস্যুতে বাহরাইনে বিক্ষোভের ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে

ভারত শাসিত কাশ্মিরের সায়ত্ত শাসন বাতিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করায় এশিয়ার বেশ কিছু নাগরিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ বাহরাইন। সোমবার বাহরাইনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রবিবার ঈদের নামাজের পর বেআইনিভাবে এসব নাগরিকেরা বিক্ষোভ করে। বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয় দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের টুইট বার্তায়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, যাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে তাদের মধ্যে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের নাগরিক রয়েছে।

গত ৫ আগস্ট (সোমবার) ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার কেড়ে নেয় বিজেপি নেতৃত্বাধীন ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। ওই দিন সকাল থেকে জম্মু-কাশ্মিরের গ্রীষ্মকালীন রাজধানী শ্রীনগর কার্যত অচলাবস্থার মধ্যে রয়েছে। দোকান, স্কুল, কলেজ ও অফিস বন্ধ রাখা হয়েছে। কোনও গণপরিবহন নেই। ইন্টারনেট-মোবাইল পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে ঘিরে রাখা জনশুণ্য রাস্তায় টহল দিচ্ছে সশস্ত্র  সেনারা। নিরাপত্তা চৌকি, নজরদারি আর কারফিউর ঘেরাটোপে বন্দি হয়ে পড়েছে কাশ্মিরিদের ঈদের আনন্দ। বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় ভারত-শাসিত কাশ্মিরের বেশিরভাগ বড় মসজিদে ঈদুল আজহার নামাজ আদায়ের সুযোগ দেয়নি কর্তৃপক্ষ।

কাশ্মিরের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে জানাতে গত শুক্রবার বাহরাইনের বাদশাহ শেখ হামাদ বিন ইসা আল খলিফাকে টেলিফোন করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ওই ফোনালাপের বিষয়ে ইমরান খানের কার্যালয়ের এক বিবৃতিতে জানানো হয়, বাহরাইনের বাদশাহ জানিয়েছেন তার দেশ কাশ্মিরের  পরিস্থিতি গভীর উদ্বেগের সঙ্গে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। আর আশা করে যে আলোচনার মাধ্যমে এই ইস্যু সমাধান হবে।

ওই ফোনালাপের পর রবিবার দেশটিতে পালিত হয় ঈদুল আজহা। বাহরাইনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ঈদের নামাজের পর কাশ্মিরের সায়ত্ত শাসন বাতিলের প্রতিবাদে সেখানে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। বেআইনিভাবে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানিয়েছে বাহরাইন। বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে নেওয়া ব্যবস্থা প্রসঙ্গে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের টুইট বার্তায় বলা হয়েছে আইনগত ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ধর্মীয় উৎসবকে রাজনৈতিক উদ্দেশে ব্যবহার না করতে নাগরিকদের আহ্বান জানিয়েছে দেশটি।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের টুইট বার্তায় বলা হয়, ঈদ জামাতের পর আইন  ভঙ্গ করে জমায়েত হওয়ায় কিছু এশীয় নাগরিকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া  হচ্ছে। এই মামলা পাবলিক প্রসিকিউশনে পাঠানো হয়েছে। নাগরিক ও বাসিন্দাদের  ধর্মীয় উৎসবকে রাজনৈতিক উদ্দেশে ব্যবহার না করার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, মধ্যপ্রাচ্যের দেশ বাহরাইনে কর্মরত রয়েছে লক্ষাধিক বাংলাদেশি।  এছাড়া পাকিস্তানসহ দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা সেখানে অবস্থান  করে থাকেন।


সংশ্লিষ্ট খবর