সোমবার ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৯ |

কাতারের কথা বলে ওমানে পতিতালয়ে বিক্রি

 বৃহঃস্পতিবার ২২শে আগস্ট ২০১৯ সকাল ০৭:২০:১৩
কাতারের

বিদেশ পাঠানোর নামে আমিরুন বেগম নামে এক মহিলাকে পাচারের অভিযোগ এনেমানব পাচার আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বানিয়াচং উপজেলার কুর্শাখাগাউড়া গ্রামের মোঃ আবুবক্কর ছিদ্দিক বাদী হয়ে গত ১আগষ্ট আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, নবীগঞ্জ উপজেলার বড়আলীপুর গ্রামের আমিরআলীর পুত্র সুলতান মিয়া ও জলাই মিয়ার পুত্র মোঃ আতাউর মিয়া পূর্বপরিচয়ের সুবাধে বাদী ছিদ্দিকের বাড়ি আসাযাওয়া করতো। এরা ২০ হাজার টাকা বেতনে কাতারে গৃহকর্তীর ভিসা আছে জানিয়ে ছিদ্দিকের স্ত্রী আমিরুন বেগমকে বিদেশ পাঠানোর অনুরোধ জানায়। 

এক পর্যায়ে ছিদ্দিক রাজি হলে ৫০হাজার টাকায় বিনিময়ে আমিরুন কেকা তার পাঠাতে সম্মত হয় সুলতান ও আতাউর। সে অনুযায়ী গত ১০ মে ছিদ্দিক তার স্ত্রীকে কাতার পাঠানোর জন্য নগদ ৫০হাজার টাকা ও ছবি তাদের হাতে তুলেদেন। কিছু দিন পর ভিসা এসে গেছে বলে এরা। 

পরে বিদেশ পাঠানোর জন্ য সিলেট নিয়ে যায় এবং ১৬ জুন সিলেট থেকে ফ্লাইটে কাতার না পাঠিয়ে ও মান পাটিয়ে দেয়। ছিদ্দিকের স্ত্রী আমিরুন ফোনে তাকেও মান পাঠানোর জানিয়ে বলে তাকে পতিতালয়ে বিক্রি করে দিয়েছে। 

এদিকে গত ২৫ জুলাই আমিরুনকে ও মান থেকে দেশে ফিয়ে আনার অনুরোধ জানায় বাদী ছিদ্দিক। এসময় অভিযুক্তরা তাকে ফিরিয়ে এনে দিতে আরো ৮০ হাজার টাকা দাবী করে। এ নিয়ে কথা কাটা কাটির একপর্যায়ে ছিদ্দিককে তাদের বাড়ি থেকে বের করে দেয়। 

এর আগে ২০১৬ সনে আরশবি নামে অপর এক মহিলা বাদী হয়ে সুলতান মিয়ার বিরুদ্ধে মানব পাচার আইনে মামলা দায়ের করেন।

সংশ্লিষ্ট খবর