সোমবার ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৯ |

কাতারে কফিলের অনুমতি ছাড়া কোম্পানি বদল করার নিয়ম

তামীম রায়হান |  শুক্রবার ৬ই সেপ্টেম্বর ২০১৯ দুপুর ০১:৪৮:১১
কাতারে

কাতারে বর্তমানে কোম্পানি পরিবর্তন করতে হলে কি চুক্তিপত্র অবশ্যই লাগবে?

আমরা জানি, ২০১৬ সালের ১৪ ডিসেম্বর থেকে কাতারে বিদেশিদের জন্য নতুন আইন কার্যকর করা হয়েছে। এই আইন ২০১৫ সালের ২১ নম্বর আইন হিসেবে পরিচিত। এ আইনে এমন কিছু বিষয়ে বিদেশি কর্মীদের সুবিধা দেওয়া হয়েছে, যা আগের আইনে ছিল না।

নতুন আইনের আলোকে কর্মক্ষেত্র পরিবর্তন যেটিকে পরিভাষায় ‘নকলে কাফালা’ বলা হয়ে থাকে, সেটি করতে হলে প্রথমে চুক্তিপত্র থাকতে হবে। আপনি বর্তমানে যে প্রতিষ্ঠানে চাকরি করছেন, সেই প্রতিষ্ঠান আপনার সঙ্গে লিখিত চুক্তি করতে বাধ্য।

কাজেই প্রথমে আপনি নিশ্চিত হয়ে নিন, বর্তমান প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আপনার চুক্তি কতদিনের জন্য নির্ধারিত। কাতারের শ্রম আইন অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠান আপনার সঙ্গে লিখিত চুক্তি করা এবং চুক্তির পত্রের একটি কপি আপনাকে দিতে বাধ্য। আপনি যদি অবহেলাবশত চুক্তিপত্রের একটি কপি আপনার কাছে সংরক্ষণ না করেন, তবে আপনি বিভিন্নভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন এবং সেক্ষেত্রে অনেক আইনি সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন।

চুক্তিপত্রে যদি আপনার কাজের মেয়াদ নির্ধারিত থাকে (যেমন, এক, দু বা তিন বছর), তবে ওই নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার এক মাস আগে কাতার শ্রম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে চুক্তিপত্রের কপি এবং নতুন যে প্রতিষ্ঠানে আপনি কাজ করতে আগ্রহী সেই প্রতিষ্ঠান থেকে একটি সম্মতিপত্র জমা দিলে খুব সহজে আপনি কাজের প্রতিষ্ঠান (পুরনো ভাষায় যেটিকে কাফালা বলা হতো) পরিবর্তন করতে পারবেন।

আর যদি চুক্তিপত্রে কোনো মেয়াদ বা সময়সীমা উল্লেখ করা না থাকে, তবে সেক্ষেত্রে ওই প্রতিষ্ঠানে আপনাকে পাঁচ বছর কাজ করতে হবে। পাঁচ বছর পূর্ণ হওয়ার দু মাস আগে শ্রম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে নির্ধারিত নিয়ম অনুযায়ী আবেদন করলে আপনি অন্য কোথাও কাজ বা চাকরি করার সুযোগ পাবেন। মনে রাখবেন, এক্ষেত্রে পুরনো কোম্পানির মালিকের অনুমতির কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই।

তবে চাকরির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে যদি আপনার সঙ্গে কোম্পানির কোনো সমস্যা হয়, যেমন বেতন না দেওয়া অথবা কোম্পানি বন্ধ হয়ে যাওয়া কিংবা অন্য যে কোনো সমস্যা, তবে সেক্ষেত্রে সবার আগে শ্রম মন্ত্রণালয়ের ‘কর্মসম্পর্ক বিভাগে হাজির হতে হবে। এই বিভাগকে ইংরেজিতে ওয়ার্ক রিলেশনস ডিপার্টমেন্ট’ এবং আরবিতে ‘ইদারা আলাকাতুল আমল’ বলা হয়ে থাকে।

এসব ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার সঙ্গে কোম্পানির চুক্তিপত্র থাকতে হবে। এর ফলে খুব সহজে কোনো ভোগান্তি ও অর্থ খরচ করা ছাড়াই আপনি আইনি সহায়তা পাবেন। যে প্রতিষ্ঠানে আপনি কাজ করছেন, সেই প্রতিষ্ঠান যদি আপনার সঙ্গে কোনো চুক্তি না করে অথবা চুক্তি করার পর এর একটি কপি আপনাকে না দেয়, তবে আপনি শ্রম মন্ত্রণালয়ের কর্মসম্পর্ক বিভাগে অভিযোগ করুন।

কাতারের দাফনা এলাকায় আলহুদা টাওয়ারে শ্রম মন্ত্রণালয়ের সেবাকেন্দ্র রয়েছে। পাশাপাশি আলখোর, সানাইয়ার আলআতিয়ায়ও আপনি সেবা পেতে পারেন।  

তামীম রায়হান

কাতার প্রবাসী লেখক ও সাংবাদিক

সংশ্লিষ্ট খবর