শুক্রবার ১৮ই অক্টোবর ২০১৯ |

বাংলাদেশি হাফেজ নিয়োগ স্থগিত করল কাতার

 রবিবার ২৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৯ বিকাল ০৩:৪৩:৫৯
বাংলাদেশি

বাংলাদেশ থেকে ইমাম-মুয়াজ্জিন নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত করেছে কাতার। বিশেষ কোনো কারণ উল্লেখ ছাড়াই অনির্দিষ্টকালের জন্য নিয়োগ স্থগিত করেছে দেশটির ধর্ম মন্ত্রণালয়।

এ বছর কাতার ওয়াকফ ও ইসলাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ থেকে দু’শত ইমাম-মুয়াজ্জিন নিয়োগের কথা ছিল। 

বাংলাদেশে প্রাথমিক বাছাই কমিটির সদস্য মাওলানা ফখরুল হুদার কাছে কাতার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রেরিত বার্তায় বলা হয়েছে, অনির্দিষ্টকালের জন্য তার বাংলাদেশ সফর মুলতবি রাখতে। তবে সফর বন্ধের সুনির্দিষ্ট কোনো কারণ বলা হয়নি।

কাতারে ইমাম নিয়োগের প্রক্রিয়া নিয়ে বিগত কয়েক বছর ধরেই বাংলাদেশে সমালোচনা হচ্ছে। রাষ্ট্রীয়ভাবে এ নিয়োগ প্রক্রিয়াটি অনেকটাই সেকেলে ব্যবস্থাপনায় সম্পন্ন করা হয়। প্রাথমিক পরীক্ষার স্থান বাছাই, পরীক্ষাকেন্দ্রের অব্যবস্থাপনা, ব্যবস্থাপকদের অপেশাদারি আচরণ ও ব্যক্তি বিশেষের ফেসবুক আইডি থেকে ফলাফল ঘোষণা নিয়েও ব্যাপক সমালোচনা রয়েছে। 

এ ব্যাপারে প্রবাসীকল্যাণ ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব  মোজাফফর আহমেদের কাছে টেলিফোনে বৃহস্পতিবার রাতে জানতে চাইলে তিনি  যুগান্তরকে বলেন, বিষয়টি আমাদের জানা নেই। ইমাম-মুয়াজ্জিন নিয়োগ নিয়ে তারা  (কাতার) আমাদের কোনো ডিমান্ড দেয়নি।

কাতার বা সৌদি আরব থেকে ইমাম-মুয়াজ্জিন কেন্দ্রিক কোনো ডিমান্ড (চাহিদা) মন্ত্রণালয়ে আসে না বলে জানান তিনি।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারে বরাবরই বাংলাদেশি হাফেজদের ব্যাপক চাহিদা  রয়েছে। বর্তমানে দেশটির ২ হাজার ৪শ’র মতো মসজিদে প্রায় ১ হাজার ৩শ’  বাংলাদেশি ইমাম ও মুয়াজ্জিন কর্মরত রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট খবর