শনিবার ১৬ই নভেম্বর ২০১৯ |

কুর্দি হামলায় সিরিয়ায় ছয় তুর্কি সেনা হতাহত

 সোমবার ২৮শে অক্টোবর ২০১৯ রাত ০১:৪৫:০৮
কুর্দি

সিরিয়ার উত্তরপূর্বাঞ্চলীয়  তুরস্ক সীমান্তবর্তী এলাকায় কুর্দি বিদ্রোহীদের রকেট ও মর্টার হামলায় ছয়  তুর্কি সেনা হতাহত হয়েছে। এরমধ্যে একজন নিহত এবং পাঁচজন আহত হয়েছে। তুর্কি  প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে  যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

সিরিয়ার  সশস্ত্র কুর্দি বিদ্রোহীদের তুরস্কের কুর্দিদের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত বলে  মনে করে আঙ্কারা। অন্যদিকে সিরিয়ার দীর্ঘ গৃহযুদ্ধে প্রতিবেশী দেশ তুরস্কে  আশ্রয় নিয়েছে প্রায় ৩৬ লাখ সিরীয় শরণার্থী; যাদের এখন নিজ দেশে ফেরাতে  মরিয়া আঙ্কারা। কুর্দি বিদ্রোহীদের হাত থেকে সিরিয়া সীমান্ত পুনরুদ্ধার করে  সেখানে ওই শরণার্থীদের পুনর্বাসন করতে চায় তুরস্ক। এজন্য সেখানে একটি  নিরাপদ অঞ্চল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর অঞ্চলটিতে ‘অপারেশন  পিস স্প্রিং’ নামের সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেয় আঙ্কারা। তুর্কি অভিযানের  আগে সেখান থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট  ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরে ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতায় গত ১৭ অক্টোবর কুর্দি  বিদ্রোহীদের সঙ্গে পাঁচ দিনের যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় আঙ্কারা।

পাঁচ দিনের যুদ্ধবিরতি চলাকালেই তুরস্কের দাবিকৃত সেফ জোনের আওতাধীন রাস  আল-আইন শহর ছেড়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয় কুর্দি বিদ্রোহীরা। সে সময় কুর্দি  কর্মকর্তারা জানান, তারা তুর্কি বাহিনী ও এর মিত্রদের কাছে শহরটির  নিয়ন্ত্রণ হস্তান্তর করেছেন। আঙ্কারার পক্ষ থেকেও কুর্দি বিদ্রোহীদের শহরটি  ছেড়ে যাওয়ার খবর নিশ্চিত করা হয়। তুর্কি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক  বিবৃতিতে বলা হয়, বিকালে ৮৬টি গাড়ির একটি বহর নিয়ে কুর্দি এসডিএফ  বিদ্রোহীরা শহরটি ত্যাগ করেছে। তবে রবিবার তুর্কি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়  কুর্দিদের যে রকেট ও মর্টার হামলায় হতাহতের কথা জানিয়েছেন সেটি চালানো  হয়েছে এই রাস আল-আইন শহরেই।

সংশ্লিষ্ট খবর