শনিবার ১৬ই নভেম্বর ২০১৯ |

কর্মীর পাসপোর্ট আটকে রাখলে কাতারে কোম্পানীর কী সাজা হতে পারে?

তামীম রায়হান |  শুক্রবার ১লা নভেম্বর ২০১৯ দুপুর ০২:১৯:৩৯
কর্মীর

কর্মীর পাসপোর্ট কি নিয়োগকর্তা আটকে রাখতে পারবেন?

কাতারে কর্মরত কোনো বিদেশি কর্মীর পাসপোর্ট তাঁর প্রতিষ্ঠানের নিয়োগকর্তা (মুদির বা ব্যবস্থাপক) অথবা মালিক (পুরনো ভাষায় যাকে কফিল বলা হয়) কখনো আটকে রাখতে পারবে না। কোনো প্রতিষ্ঠান যদি তাঁর কর্মীদের পাসপোর্ট অফিসে জমা রাখে, তবে তা বেআইনি ও অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। এই অপরাধে শাস্তির বিধান রয়েছে কাতারে আইনে।

কাতারে বিদেশিদের প্রবেশ, বসবাস ও দেশত্যাগ সম্পর্কে যে আইন রয়েছে, এটিকে ২০১৫ সালের ২১ নং আইন বলা হয়ে থাকে। এই আইনের আট নং ধারায় বলা হয়েছে, নিয়োগকর্তা তার কর্মীর জন্য কাতারে বৈধভাবে বসবাসের পরিচয়পত্র (ইকামা) তৈরি করে দেওয়ার পর কর্মীর কাছে তার পাসপোর্ট হস্তান্তর করবে। তবে যদি ওই কর্মী লিখিতভাবে নিজের পাসপোর্ট নিয়োগকর্তার কাছে জমা রাখার আবেদন করে তবে চাহিবামাত্র হস্তান্তর শর্তে সেটি নিয়োগকর্তা জমা রাখতে পারেন।

ফলে কাতারের কোনো কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠান যদি তাঁর কর্মীদের লিখিত আবেদন ছাড়া জোর করে পাসপোর্ট আটকে রাখে, তবে এই অপরাধে ওই প্রতিষ্ঠানকে আর্থিক জরিমানা গুনতে হবে। এ বিষয়ে বিদেশি কর্মীদের জন্য প্রণীত আইনের ৩৯ নং ধারায় বলা হয়েছে, কর্মীর পাসপোর্ট আটকে রাখার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হলে ওই প্রতিষ্ঠান বা নিয়োগকর্তাকে ২৫ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে।

কাজেই কাতারে কর্মরত প্রত্যেক বিদেশি কর্মী নিজের পাসপোর্ট নিজের কাছে রাখতে চাওয়া তাঁর আইনি অধিকার। কোনো প্রতিষ্ঠান যদি জোর করে পাসপোর্ট জমা নেয়, তবে এক্ষেত্রে ওই কর্মী অবশ্যই তাঁর প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ বা মামলা দায়ের করতে পারেন। তবে কখনো কখনো অনেক কর্মী সুরক্ষার জন্য নিজের পাসপোর্ট তাঁর প্রতিষ্ঠানের কাছে জমা রাখতে চান, সেক্ষেত্রে ওই কর্মী লিখিতভাবে বিষয়টি জানিয়ে তারপর পাসপোর্ট জমা দেবেন।

এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে কোনো প্রতিষ্ঠান যদি নিজের পক্ষ থেকে কর্মীর নামে আবেদন লিখে তাতে কর্মীর স্বাক্ষর নিয়ে পাসপোর্ট আটকে রাখার প্রতারণা না করতে পারে, সে ব্যাপারে অবশ্যই কর্মীকে সচেতন থাকতে হবে।

প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে যে কোনো সময় কোনো কাগজে স্বাক্ষর করতে বলা হলে তাতে কী লেখা রয়েছে, তা জানতে চাওয়া একজন সচেতন কর্মীর অবশ্য কর্তব্য। আর কোনো সাদা কাগজে স্বাক্ষর করা মানে নিজের উপর বিপদ ডেকে আনা। তাই এ থেকে অবশ্যই দূরে থাকতে হবে।

মনে রাখবেন, বিদেশে বসবাসকালে আপনার পাসপোর্ট আপনার সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ। এটি হারিয়ে গেলে আপনি নিজের দেশে ফেরত যাওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে।

তাই কোনোভাবেই নিজের পাসপোর্ট অন্য কারও কাছে জমা রাখবেন না। আপনার প্রতিষ্ঠান যদি আপনার পাসপোর্ট আটকে রেখে থাকে, তবে আজই তা নিজের সংগ্রহে নিয়ে নিন নয়তো আইনি সংস্থার কাছে অভিযোগ করুন।

আপনি কি কাতারে থাকেন? তবে আপনার জন্য আরো কিছু বিশেষ আয়োজন দেখতে  পড়ুন:

কাতারে মদ-গাজা বা ইয়াবা মামলায় ধরা পড়লে কী সাজা হতে পারে?

কাতারে নিরাপদে থাকতে হলে যা করতে হবে--

কাতারে থাকার সময় যা করবেন, যা করবেন না

কফিলের অনুমতি ছাড়া কোম্পানি চেঞ্জ করবেন কীভাবে?


তামীম রায়হান

কাতার প্রবাসী লেখক ও সাংবাদিক

সংশ্লিষ্ট খবর