‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপে যত সুবিধা

বৈদেশিক কর্মসংস্থান সংক্রান্ত সেবা আরও সহজ ও ডিজিটালাইজ করার লক্ষ্যে গত ৮ মে চালু করা হয় ‘আমি প্রবাসী (Ami Probashi)’ অ্যাপ।

অ্যান্ড্রয়েডভিত্তিক এই অ্যাপ প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো এবং থেইন সিস্টেমসের একটি যৌথ উদ্যোগ।

অ্যাপটি অল্প সময়েই বেশ গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। ইতিমধ্যে ৯ লাখ ৫০ হাজারের বেশি ডাউনলোডের মাইলফলক ছুঁয়েছে। এছাড়া মাত্র আড়াই মাসে অ্যাপটির মাধ্যমে প্রায় সাড়ে ৪ লাখ বিএমইটি নিবন্ধন করা হয়েছে। এই সংখ্যাটি আমিপ্রবাসী ব্যবহারকারীদের মোট সংখ্যার ৪৪ শতাংশ।

বিএমইটি নিবন্ধন, পাসপোর্টের বৈধতা, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কোভিডের টিকার নিবন্ধন সহ আরো অনেক ফিচার এই অ্যাপে রয়েছে। পাশাপাশি বিদেশে চাকরির সুযোগ খোঁজার জটিলতা ও খরচও কমিয়ে এনেছে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মটি। স্মার্টফোন আর ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই যে কেউ ঘরে বসে অ্যাপটিতে নিবন্ধন করে সকল সুবিধা নিতে পারবেন।

অ্যাপটি স্বয়ংক্রিয় চ্যানেলের মাধ্যমে অনলাইনে পাসপোর্ট যাচাই প্রক্রিয়াটি খুব সহজ করে দিয়েছে। ডিইএমও সেন্টারে উপস্থিত হয়ে শুধু অফিস চলাকালীন কর্মদিবসেই নিবন্ধন করা যায়। অপরদিকে, আমিপ্রবাসীর মাধ্যমে পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন চ্যানেলের অফ পিক আওয়ার লিংক ক্ষমতা ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা সপ্তাহান্তে এবং সরকারি ছুটির দিনগুলো সহ ২৪/৭ নিবন্ধন সম্পন্ন করতে পারবেন।

অ্যাপটির মাধ্যমে বিদেশে কাজ করতে ইচ্ছুক বাংলাদেশিরা একেবারে শুরু থেকে গন্তব্যে পৌঁছানো পর্যন্ত পুরো প্রক্রিয়াটি ধাপে ধাপে জানতে পারবেন। এর মাধ্যমে চাকরির আবেদন করা, চাকরি খোঁজা, সরকার অনুমোদিত এজেন্টদের সঙ্গে যুক্ত হওয়া, বিমানবন্দরে সহায়তা পাওয়া, অনুমোদিত মেডিকেল সেন্টার, নিকটবর্তী পাসপোর্ট অফিস ও ডিইএমও অফিস খোঁজা সহ আরো অনেক সেবা মিলছে।

আমিপ্রবাসী-র প্রধান অংশীদারদের মধ্যে আছে মন্ত্রণালয়, বিএমইটি, বিওইওএসএল-এর মতো সরকারি সংস্থা, নিয়োগকারী সংস্থা এবং বিদেশি নিয়োগকর্তা। প্ল্যাটফর্মটি এসব অংশীদারদের সম্ভাব্য প্রবাসী শ্রমিক এবং তাদের দক্ষতা ও পছন্দ বিষয়ে তথ্য প্রদান করে থাকে। কোনো সম্ভাব্য কাজের সুযোগের জন্য যেকোনো সময় এসব শ্রমিকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাবে।

অ্যাপটিতে সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়ার মতো দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ থেকে শুরু করে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতার, কুয়েতের মতো উপসাগরীয় দেশগুলো সহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উচ্চাকাঙ্ক্ষী অভিবাসীদের ক্লায়েন্ট বেস রয়েছে, যা নিয়োগকারী সংস্থাকে অ্যাপয়েন্টমেন্ট ট্র্যাকারের মাধ্যমে তাদের চাকরির জন্য যোগ্য প্রার্থী খুঁজে পেতে সাহায্য করে।

বৈধ পথে আসা বিদেশি রেমিট্যান্সের প্রবাহ দ্বিগুণ করার জন্য কাজ করার উদ্যোগ নিচ্ছে আমিপ্রবাসী। এর জন্য বিভিন্ন দেশের মধ্যে পারিশ্রমিক আদানপ্রদানের ব্যবস্থা করা জরুরি। এতে আমিপ্রবাসী-র মাই ইনফরমেশন ফিচারের মাধ্যমে সবাই প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো পাবে এবং অভিবাসনের খরচও অনেক কমে আসবে। বৈধ পাসপোর্টধারী ক্রেতার পরিচয় যাচাই করার জন্য এতে স্বয়ংক্রিয় এপিআই রয়েছে, যার মাধ্যমে ভবিষ্যতে মোবাইল ফিনানশিয়াল সার্ভিস ও রেমিট্যান্সের মতো ভ্যালু অ্যাডেড সার্ভিস পাওয়া সহজ হবে।

অ্যাপটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যাবে গুগল প্লে স্টোর থেকে।

,