জিম্বাবুয়ে থেকে ফিরে করোনায় আক্রান্ত নারী ক্রিকেটার: ওমিক্রন নিয়ে শঙ্কা

যে শঙ্কায় মাঝপথেই টুর্নামেন্ট বাতিল করে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছিল নারী ক্রিকেটারদের, সেটাই সত্যি হলো। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন জিম্বাবুয়ে থেকে ফেরা বাংলাদেশ জাতীয় দলের দুই ক্রিকেটার।

বিসিবির একটি সূত্র সোমবার দুই জন ক্রিকেটারের করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসার কথা জানিয়েছে।

দেশে ফেরার পথে ও দেশে ফেরার পর নারী ক্রিকেটার, কোচ ও কর্মকর্তাদের অনেকবার পরীক্ষা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে পাওয়া পরীক্ষায় দুই জনের করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে।

তাদের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। বাকিরা ঢাকার একটি হোটেলে কোয়ারেন্টিনে আছেন। সবার আরেক দফা পরীক্ষা করানো হয়েছে, এর ফল আসার কথা রাতেই।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব উতরানোর পর অনেক বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল যেন দেশে ফেরা। করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ ঠেকাতে বাতিল হয়ে যায় একের পর এক ফ্লাইট।

জিম্বাবুয়ে থেকে অনেক পথ ঘুরে, অনিশ্চয়তার অনেক প্রহর পেরিয়ে অবশেষে গত বুধবার দেশে ফিরেন সালমা খাতুন-রুমানা আহমেদরা।

প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করে ঢাকায় পৌঁছানোর পরপরই প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে যেতে হয় গোটা দলকে। সবার নেগেটিভ ফল এলে সোমবার ১২টায় তাদের হোটেল ছেড়ে বাড়ি ফিরে যাওয়ার কথা ছিল।

বিসিবি প্রধানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের কথা ছিল এদিন। কিন্তু দুই জন পজিটিভ হওয়ায় বাতিল হয়ে যায় সেটি।

জিম্বাবুয়েতে চলতে থাকা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব মাঝপথে বাতিল করা হয় করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ধরন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায়। র্যা ঙ্কিংয়ে অবস্থানের কারণে নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের মেয়েদের বিশ্বকাপ খেলা। পরদিনই দেশের উদ্দেশে রওনা দেয় তারা।

ফ্লাইট জটিলতায় শুরুতে নামিবিয়া হয়ে তারা পৌঁছায় ওমানে। দফায় দফায় বাতিল হতে থাকে ফ্লাইট। মূলত আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চল থেকে তারা ফিরছিলেন বলেই সমস্যা হচ্ছিল ফ্লাইট পেতে। অবশেষে আইসিসি মাস্কাট থেকে ঢাকার একটি ফ্লাইট চূড়ান্ত করতে পারে।

বাছাইপর্বে পাকিস্তানকে হারিয়ে দুর্দান্ত শুরুর পর বাংলাদেশের মেয়েরা উড়িয়ে দেয় যুক্তরাষ্ট্রকে। এরপর অবশ্য হেরে যায় থাইল্যান্ডের কাছে। তবে মাঠের ক্রিকেটেই বাছাই উতরানোর সম্ভাবনা ছিল যথেষ্ট। শেষ পর্যন্ত বাছাই বাতিল হওয়ায় র্যা ঙ্কিংয়ের ভিত্তিতেই স্বপ্নপূরণ হয় মেয়েদের।

আগামী মার্চ-এপ্রিলে ৮ দলের বিশ্বকাপ হবে নিউ জিল্যান্ডে।

Loading...
,