কাতারে আসার সময় না জেনে ওষুধ বহন করলে হতে পারে জেল-জরিমানা

কাতারে আসার সময় নিজের সাথে ওষুধ আনার আগে নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে, এই ওষুধ নিয়ে কাতারে ঢোকার অনুমতি আছে কিনা। নিজের জন্য হোক বা বন্ধু-স্বজনের জন্য হোক, না জেনে ওষুধ সাথে আনলে আইনি ঝামেলার মুখোমুখি হতে পারেন যে কেউ।

সম্প্রতি কাতারে ভারতীয় দূতাবাস কর্তৃপক্ষ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, কাতারে নিষিদ্ধ ওষুধ বহন করলে গ্রেফতার ও জেল হতে পারে ওষুধ বহনকারী যাত্রীর।

তবে যেসব ওষুধ কাতারে নিষিদ্ধ নয় সেগুলো ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য সাথে আনা যাবে। অবশ্যই এসব ওষুধ আনার সময় স্বীকৃত ডাক্তার অথবা স্বীকৃত হাসপাতালের প্রেসক্রিপশন দেখাতে হবে। আর প্রেসক্রিপশনটি অবশ্যই ভ্রমণের আগের একমাসের মধ্যে হতে হবে।

কাতারে আসার সময় মাদকদ্রব্য বা সাইকোট্রপিক পদার্থের সব ধরণের ওষুধ বহন করা নিষিদ্ধ।

নিষিদ্ধ ওষুধের তালিকায় রয়েছে: লিরিকা, ট্রামাডল, আলপ্রাজোলাম (জ্যানাক্স), ডায়াজেপাম (ভ্যালিয়াম), জোলাম, ক্লোনাজেপাম, জোলপিডেম, কোডাইন, মেথাডন, প্রেগাবালিনসহ আরও বিভিন্ন ওষুধ।

ভারতীয় দূতাবাসের ওয়েবসাইটে কাতারে যেসব ওষুধ আনা নিষিদ্ধ, সেগুলোর তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

,