কাতারে নৌসেনাদের মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে ভারতের আবেদন গ্রহণ

গত ২৬ অক্টোবর গুপ্তচরবৃত্তির দায়ে ভারতীয় নৌবাহিনীর আট প্রাক্তন অফিসারকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল কাতারের ফার্স্ট ইনস্ট্যান্স আদালত। সেই আদেশের বিরুদ্ধে আবেদন করেছে ভারত সরকার।

বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) কাতারের আদালত ভারত সরকারের সেই আবেদন গ্রহণ করেছে।

কাতারে বিভিন্ন কোম্পানিতে নতুন চাকরির খবর

জানা গেছে, আবেদনের কারণে এখনই ওই অভিযুক্ত ৮ প্রাক্তন অফিসারের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হচ্ছে না। এই মামলার রায় ঘোষণার আগে ভারতের আবেদন বিবেচনা করবে কাতারের আদালত। দ্রুতই এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে বলে শোনা যাচ্ছে।

সূত্রের খবর, ভারতের আবেদন কয়েকদিন পরে তা গ্রহণ করে কাতারের আদালত। বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) এই মামলার প্রথম শুনানি ছিল। শুনানির সময়, আদালত আনুষ্ঠানিকভাবে আবেদনের নথিটি গ্রহণ করেছে। এই আবেদনের নথিটি ভারতীয় সরকারের তত্ত্বাবধানে প্রাক্তন নৌসেনা অফিসারদের নিয়োগ করা এক আইনজীবী তৈরি করেছিলেন।

নৌসেনার এই আট প্রাক্তন অফিসার ‘দাহরা গ্লোবাল টেকনোলজিস অ্যান্ড কনসালটেন্সি সার্ভিসেস’ নামে কাতারের এক সংস্থায় কাজ করতেন। এই সংস্থার হয়ে মূলত তারা কাতারি সেনাবাহিনীর সদস্যদের সামরিক প্রশিক্ষণ দিতেন।

২০২২ সালের অগস্টেই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। সেই থেকে তারা কাতারি জেলে বন্দি আছেন। মৃত্যুদণ্ড দেয়ার আগে এবং পরে, দুইবার কনস্যুলার অ্যাক্সেস নিয়ে কারাবন্দি প্রাক্তন নৌসেনা অফিসারদের সঙ্গে দেখা করেছিলেন ভারতীয় হাইকমিশনার।

কাতারের সব খবর সরাসরি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে এখানে ক্লিক করুন

তাদের ঠিক কী অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল এবং পরে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে, তা জানায়নি কাতার কর্তৃপক্ষ। এমনকি ভারত জানিয়েছে, তারাও এই বিষয়ে কিছু জানে না। তবে সূত্রের খবর, ইজরায়েলের হয়ে কাতারি সেনাবাহিনীর উপর চরবৃত্তি করার অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। এই একই অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন দাহরা গ্লোবালের মালিকও।

গ্রেপ্তারকৃত ভারতীয় নৌবাহিনীর প্রবীণরা হলেন কমান্ডার পূর্ণেন্দু তিওয়ারি, কমান্ডার সুগুনাকর পাকালা, কমান্ডার অমিত নাগপাল, কমান্ডার সঞ্জীব গুপ্ত, ক্যাপ্টেন নভতেজ সিং গিল, ক্যাপ্টেন বীরেন্দ্র কুমার ভার্মা, ক্যাপ্টেন সৌরভ বশিষ্ট ও নাবিক রাগেশ গোপাকুমার।

কাতার এয়ারওয়েজে চাকরির খবর দেখতে এখানে ক্লিক করুন

গ্রেপ্তারকৃতরা ভারতীয় নৌবাহিনীতে ২০ বছর পর্যন্ত কাজ করার রেকর্ড রয়েছে। এমনকি তারা বাহিনীতে প্রশিক্ষকসহ গুরুত্বপূর্ণ পদেও অধিষ্ঠিত হয়েছেন।

আরও দেখুন

বাংলাদেশ জার্নাল

Loading...
,