কাতারে মিকাইনিস কোয়ারেন্টাইনে নতুন নির্দেশনা

কাতারে বর্তমানে কোয়ারেন্টাইন হিসেবে দুটি উপায় ব্যবহৃত হচ্ছে। একটি মিকাইনিসে এবং আরেকটি হোটেলগুলোতে।

যারা দুই ডোজ টিকাপ্রাপ্ত, তারা কাতারে এসে দুদিনের জন্য কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন, আরা যারা টিকাবিহীন, তারা এসে ৭ দিনের জন্য কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন।

বাংলাদেশ থেকে বেশিরভাগ প্রবাসী এসে বর্তমানে মিকাইনিসে কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন। খরচ কম বিধায় এই মিকাইনিসকে বেছে নিচ্ছেন অনেকে।

যারা মিকাইনিসে থাকার জন্য কোয়ারেন্টাইন বুকিং করেন, কাতারে এসে পৌঁছানোর পর তাদেরকে এয়ারপোর্ট থেকে সরাসরি নিয়ে যাওয়া হয় মিকাইনিসে।

তবে এই মিকাইনিস কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি এক নতুন নির্দেশনা জারি করেছে।

এই নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তান থেকে আগত কোনো যাত্রী মিকাইনিসে কোনো রকমের খাবারদাবার আনতে পারবে না। এমনকি শুকনো খাবারও না।

মিকাইনিসে ঝুলনো নোটিশ

এর ফলে গত কয়েকদিন ধরে যারা মিকাইনিসে কোয়ারেন্টাইনে ঢুকছেন, তাদেরকে ঢোকার আগে সব ব্যাগ চেক করে সমুদয় খাবার ফেলে দিতে হচ্ছে। এমনকি কাউকে তা দিতেও দেওয়া হচ্ছে না।

ফলে যারা বাংলাদেশ থেকে এখন মিকাইনিসে কোয়ারেন্টাইন বুকিং করে আসছেন, তারা কেউ যেন কোনো ধরণের খাবার সাথে না আনেন, সে ব্যাপারে সচেতন থাকা প্রয়োজন। মিকাইনিসে ঢোকার আগে সব খাবার অবশ্যই ফেলে দিতে হবে।

চলছে চেকিং

তবে হোটেল কোয়ারেন্টাইনে যারা থাকছেন, তাদের জন্য এই নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য নয়।

নিয়মিত গালফ বাংলায় প্রকাশিত খবরগুলো হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন

Loading...
,