কাতার থেকে জুন-জুলাইয়ে দেশে গেলে আর আসা যাবে?

কাতার থেকে চলতি বছরের জুন-জুলাইয়ে যারা দেশে যাবেন, তাদেরকে বিশ্বকাপের আগে ফিরতে দেওয়া হবে না- এমন খবর গত কয়েক মাস ধরে ছড়িয়ে পড়েছে।

এর ফলে কাতারে বসবাসরত বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশি লোকদের মনে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে।

তবে কাতার সরকারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে কোনো পরিকল্পনা বা সিদ্ধান্ত হয়নি বলে দাবি করেছেন বিশ্বকাপ আয়োজক সংস্থা সুপ্রিম কমিটির মুখপাত্র খালেদ আননেমা।

খালেদ আননেমা

কাতার টেলিভিশনে এক অনুষ্ঠানে এসে তিনি বলেন, কাতারে বিশ্বকাপ চলাকালে প্রবাসীদের আসা-যাওয়ায় কোনো সমস্যা হবে না। বরং আমরা চাই, বিশ্বকাপ চলাকালে কাতারে বসবাসরত বিদেশিরা যেন কাতারে থাকেন।

এছাড়া বিশ্বকাপ চলাকালে লোকজনের অফিসে যাতায়াতে সমস্যা হবে কিনা, এমন ব্যাপারে খালেদ বলেন, বিষয়টি আরও পরে বুঝা যাবে। কোনো অফিস চাইলে সেসময় ঘরে বসে কর্মীদেরকে কাজ চালিয়ে নেওয়ার সুযোগ দিতে পারেন।

কাতার শ্রম মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি হাসান আলওবায়দালি সম্প্রতি বলেছেন, বিশ্বকাপ চলাকালে শ্রমিকদেরকে নিজ দেশ থেকে কাতারে ফিরতে দেওয়া হবে না, এমন কথার কোনো ভিত্তি নেই।

জানা গেছে, কাতারে সড়ক ও অন্যান্য স্থাপনা নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান আশগালের একটি চিঠি থেকে এই বিষয়টির সূত্রপাত হয়।

ওই চিঠিতে বলা হয়েছিল, কাতারে এখন যেন কোনো শ্রমিক দেশে না যায় বরং সবাইকে সেপ্টেম্বর থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত ছুটিতে পাঠানো হয়।

তবে এই চিঠি কেবলমাত্র আশগালের অভ্যন্তরীন ব্যাপার এবং বিভিন্ন কনস্ট্রাকশন কোম্পানিকে কাজ যথাসময়ে শেষ করার জন্য নির্দেশনা হিসেবে বলা হয়েছে- এমন দাবি করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

তবে এ ব্যাপারে কোনো ধরণের সরকারি সিদ্ধান্ত নেই।

কাতার প্রবাসীদের জন্য বিভিন্ন কোম্পানিতে চাকরির খবর দেখতে এখানে ক্লিক করুন

আজকের আরও খবর

Loading...
,