ঢাকায় দুই যাত্রীর অভিযোগে কাতার এয়ারওয়েজকে জরিমানা

বাংলাদেশে ভোক্তা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা কাতার এয়ারওয়েজকে আজ জরিমানা করেছেন। এই জরিমানায় দুজন বাংলাদেশি যাত্রীার অভিযোগে কাতার এয়ারওয়েজকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জানা গেছে, পছন্দের আসন দেওয়ার কথা বলে বাংলাদেশ থেকে কানাডাগামী বয়স্ক দুজন যাত্রীর কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নেয় কাতার এয়ারওয়েজ। তবে পছন্দের সেই আসনে যাত্রীদের বসতে দেননি কাতার এয়ারওয়েজের চেক-ইন কর্মকর্তারা।

পরে বাধ্য হয়ে অন্য আসনে বসে কানাডায় যান ওই দুই যাত্রী। আর এই নিয়ে বয়স্ক ওই দুই যাত্রীর পক্ষে টিকিট কেনা তার পরিবারের একজন সদস্য ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে এ নিয়ে অভিযোগ করেন।

কাতারে করোনা টেস্ট কিটের দাম বেঁধে দিল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়

ভোক্তা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা দুই পক্ষের দীর্ঘ শুনানি মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) রায় দেন। রায়ে কাতার এয়ারওয়েজকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। আগামী পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে জরিমানার অর্থ ওই দুই যাত্রীকে পরিশোধের নির্দেশ দেওয়া হয়।

ভোক্তা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ২০২১ সালের ১৩ জুলাই একজন চিকিৎসক তার পরিবারের দুজন বয়স্ক (বার্ধক্যজনিত কারণে শারীরিকভাবে অক্ষম) ব্যক্তির জন্য কাতার এয়ারওয়াজের কানাডাগামী ফ্লাইটের টিকিট কেনেন।

ওই বছরের ১৭ জুলাই ফ্লাইট ছিল। ফ্লাইটের ১৬ডি ও ১৭সি আসন বরাদ্দ দিতে তাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নেন, যাকে এয়ারওয়েজ কর্তৃপক্ষ ‘প্রিফার্ড’ সিট বরাদ্দ বলে উল্লেখ করেন।

তবে নির্ধারিত দিনে প্লেনে ওঠার পর চেক-ইন কর্মকর্তারা বয়স্ক যাত্রীদের বরাদ্দ সিট দুটো দিতে অস্বীকৃতি জানান। পরে তারা অন্য সিটে কানাডা যান।

কাতারে বিশ্বকাপের সময় স্কুল বন্ধ ঘোষণা

কাতার এয়ারওয়েজ জানিয়েছে, ওই দুটি সিট বাতিল করা হয়েছিল কিন্তু ওই যাত্রী দুজনকে তা টেকনিক্যাল ত্রুটির কারণে জানানো সম্ভব হয়নি।

Loading...
,