যাত্রীর পায়ুপথে সোনার বার: অবশেষে গ্রেফতার

সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দরে পাসপোর্ট যাত্রীর পায়ুপথ থেকে তিনটি সোনার বার উদ্ধার করেছে কাস্টমস গোয়েন্দা। বুধবার সকালে এগুলো উদ্ধার করা হয়।

আটক পাসপোর্ট যাত্রী ঢাকার মুন্সীগঞ্জ জেলার কপিবাগ গ্রামের আব্দুল সাত্তার শেখের পুত্র মোহাম্মদ নাফিজ শেখ (২৯)।

কাতারের সব খবর সরাসরি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে এখানে ক্লিক করুন

ভোমরা কাস্টমস্ গোয়েন্দা অফিস জানায়, বাংলাদেশ থেকে কৌশলে অভিনব কায়দায় সোনা পাচার হচ্ছে এমন গোপন সংবাদে ভোমরা কাস্টমস্ গোয়েন্দা ও তদন্ত সার্কেলের একটি বিশেষ টিম ওঁৎ পেতে বসে থাকে কাস্টমস্ সংলগ্ন এলাকায়।

অভিযুক্ত পাসপোর্ট যাত্রী কাস্টমস্ এলাকায় প্রবেশের পর নজরদারিতে রাখে কাস্টমস্ গোয়েন্দার বিশেষ টিম।

সন্দেহভাজন পাসপোর্ট যাত্রী কাস্টমস্ এলাকা অতিক্রম করে ইমিগ্রেশনে প্রবেশকালে ওই পাসপোর্ট যাত্রীর গতিরোধ করে জিজ্ঞাসাবাদ করেন কাস্টমস্ গোয়েন্দার কর্মকর্তারা।

জিজ্ঞাসাবাদে তার নিকট বহনকৃত সোনার কথা অস্বীকার করায় তার দেহ তল্লাশির পর তার ব্যাগেজ কাস্টমসের স্ক্যানিং মেশিনে স্ক্যান করা হয়।

এরপর যাত্রীর নিকট থেকে কিছু না পাওয়া গেলে পাসপোর্ট যাত্রীকে সাতক্ষীরা ডক্টরস ল্যাবে নিয়ে এক্স-রে করার পর তার পায়ুপথে সোনার অস্তিত্ব পায় কাস্টমস্ গোয়েন্দার কর্মকর্তারা।

আটক যাত্রীর পায়ুপথ থেকে তিনটি সোনার বার লাল রংয়ের স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় উদ্ধার করেন গোয়েন্দা কর্মকর্তারা।

আসামির নিকট থেকে উদ্ধার হওয়া ৩টি সোনার বার আটকসহ পাসপোর্ট ও একটি মোবাইল ফোন জব্দ করেন গোয়েন্দা কর্তৃপক্ষ। জব্দ সোনার আনুমানিক বাজার মূল্য ২৫ লাখ ৬৫ হাজার ৮শ টাকা নির্ধারণ করা।

ভোমরা কাস্টমস্ গোয়েন্দা ও তদন্ত সার্কেলের রাজস্ব কর্মকর্তা সেলিম চৌধুরী এ খবর নিশ্চিত করেন।

আরও পড়ুন:

গালফ বাংলা

Loading...
,