ঢাকা-বরিশাল ফ্লাইট ভাড়া মাত্র ২২০০ টাকা

দেশের স্বল্পতম দুরত্বের বরিশাল সেক্টরে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান যাত্রীভাড়া আগামী দু সপ্তাহের জন্য ৩ হাজার টাকা থেকে ২২শ টাকায় হ্রাস করেছে

বৃহস্পতিবার থেকে এ ভাড়া কার্যকর হয়ে তা ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত বলবত থাকবে বলে জানা গেছে।

প্রতি বছরই রমাজানের শুরু থেকে ২০ রোজা পর্যন্ত দক্ষিনাঞ্চলের সাথে সারা দেশের সব সেক্টরেই যাত্রী চলাচল সিমিত থাকায় নৌ ও আকাশ পথেও ভাড়া হ্রাস করা হয়ে থাকে।

কাতারের সব খবর হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন

তবে বিমান-এর স্বাভাবিক সময়ের ভাড়া এখনো বেসরকারী নভো এয়ারের চেয়ে ২শ টাকা বেশী। এমনকি স্বল্প দুরত্বের বরিশাল সেক্টরে বিমান-এর ভাড়া এখনো দেশের সর্বাধিক দুরত্বের সৈয়দপুর সহ যেকোন অভ্যন্তরীন সেক্টরের চেয়ে তুলনামূলকভাবে বেশী বলে জানা গেছে।

ইতোপূর্বে গত ১ মার্চ থেকে বরিশাল সেক্টরে যাত্রীভাড়া ৩ হাজার টাকা থেকে ২শ টাকা বৃদ্ধি করে বেসরকারী সেক্টরের সাথে প্রতিযোগীতায় টিকতে গত ১২ মার্চ থেকে তা প্রত্যাহার করা হয়।

কাতারে চাকরি খুঁজছেন? এখানে ক্লিক করুন

বিষয়টি নিয়ে অন লাইন সহ বিভিন্ন জাতীয় ও স্থাণীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশের পাশাপাশি আকষ্মিকভাবে যাত্রী সংখ্যা হ্রাস পাওয়ায় বিমান কতৃপক্ষ ভাড়া হ্রাসের সিদ্ধান্ত গ্রহন করে।

অপরদিকে গ্রীষ্মকালীন সময়সূচীতে ইতোপূর্বে বরিশাল সেক্টরে শণিবারের বাড়তি ফ্লাইট-এর তফসিল ঘোষনা করে প্রত্যাহারের বিষয়টি নিয়ে আর কোন ফয়সালা হয়নি।

গ্রীষ্মকালীন সময়সূচীতে শণিবারে বরিশাল সেক্টরে বিমান-এর ৪র্থ ফ্লাইট চালুর কথা থাকলেও অজ্ঞাত রহস্যজনক কারণে তা বাতিল করা হয়েছে।

বিমান-এর সেন্ট্রাল কন্টোল থেকে শণিবার ঢাকা থেকে সকাল ৮.২৫টায় এবং সকাল সাড়ে ৯ টায় বরিশাল থেকে ফ্লাইট চলাচলের তফসীলও দেয়া হয়েছিল।

বরিশাল সেলস অফিস থেকে এ লক্ষ্যে প্রস্তুতি গ্রহন করলেও ঘোষিত চুড়ান্ত সিডিউলে শেষ পর্যন্ত শণিবারের ফ্লাইটটি বাতিল করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মাস দুয়েক আগে ঘোষিত গ্রীষ্মকালীন সিডিউলে বরিশালে ৪র্থ ফ্লাইট হিসেবে মঙ্গলবার দুপুরে ফ্লাইট ঘোষনা করা হয়েছিল।

কিন্তু আগে থেকেই বরিশাল সেক্টেরে বৃহস্পতিবার বিকেলে এবং অন্য সবগুলো দিন সকালে ফ্লাইটের দাবী ছিল যাত্রীদের।

মন্ত্রনালয় সহ সরকারের বিভিন্ন মহল থেকেও বিষয়টি নিয়ে বিমান কতৃপক্ষের মনযোগ আকর্ষণ করা হলে ৯ মার্চ থেকে যাত্রী চাহিদা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বিকেল সোয়া ৪টায় এবং শুক্র ও রোববার সকাল ৮.২৫টায় নতুন সময়সূচী কার্যকর করেছে বিমান।

পাশাপাশি যাত্রী চাহিদা অনুযায়ী মঙ্গলবারে ফ্লাইটটি শণিবারে নির্ধারন করা হয়েছিল।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত শণিবারের ফ্লাইটটি বাতিল করার কারণ সম্পর্কে কোন মহল থেকেই সুস্পষ্ট কিছু বলা হয়নি।

বিষয়টি নিয়ে বিমান-এর সেন্ট্রাল কন্ট্রোল ও মার্কেটিং বিভাগের বক্তব্যের কোন মিল খুজে পাওয়া যাচ্ছেনা।

তবে বিমান-এর মার্কেটিং ও সেলস-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিচালকের সাথে বিষয়টি নিয়ে আলাপ করা হলে তিনি ক্রু সংকটের কথা উল্লেখ করে বিষয়টি দেখবেন বলেও জানান।

বর্তমানে বেসরকারী ইউএসÑবাংলা বরিশাল সেক্টরে প্রতিদিন বিকেলে ফ্লাইট পরিচালনার পাশাপাশি ইতোপূর্বে বন্ধ হয়ে যাওয়া নভো এয়ার বিমানের চেয়ে ২শ টাকা কমে প্রতিদিন সকালে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

সাধারন যাত্রীদের অভিযোগ, শণিবার সকালে একটি বেসরকারী এয়ারলাইন্সকে মনোপলি ব্যাবসা দিতেই বিমান তার ঘোষিত সিডিউল থেকে সরে এসেছে।

তবে এ ব্যাপারে বিমান-এর বরিশাল সেলস অফিসের জেলা ব্যাবস্থাপক কোন কথা বলতে রাজী হননি।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে স্বাধিনতার সূবর্ণ জয়ন্তি ২০২১-এর ২৬ মার্চ সকালে বরিশালের আকাশে নিয়মিত ফ্লাইট নিয়ে আবার ডানা মেলে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান।

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের সরাসরি নির্দেশে বরিশাল সেক্টরে ঐ ফ্লাইট চালু করা হলেও পদ্মা সেতু চালুর অজুহাত তুলে গত ৫ আগষ্ট থেকে বরিশাল সেক্টরে বিমান-এর নিয়মিত ফ্লাইট সপ্তাহে ৩ দিনে হ্রাস করা হয়।

তবে এজন্য প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর বা মন্ত্রনালয়ের অনুমোদন দুরের কথা অবহিত পর্যন্ত করেন নি তৎকালীন ব্যাবস্থাপানা পরিচালক।

গতবছর বরিশাল সেক্টরে বিমান ফ্লাইট প্রতি ৭০%-এরও বেশী যাত্রী বহন করলেও কতৃপক্ষ বানিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে এ সেক্টরে নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা করছে না বলে অভিযোগ সাধারন যাত্রীদের।

তবে এ বিষয়ে বিমান-এর ব্যাবস্থাপনা পরিচালক জনাব শফিউল আজিম জানান, ‘বরিশাল সেক্টর নিয়ে আমরা ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহনের চেষ্টা করছি’।

‘বিদ্যমান কিছু সংকট কাটিয়ে উঠতে পারলে এ সেক্টরে যাত্রী চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সম্ভব সব কিছু করার কথাও জানান তিনি।

আরো পড়ুন

Inqilab

Loading...
,