যেভাবে কাতারবাসীকে অবাক করলেন আমির শেখ তামিম

কাতারে ঋণ নিয়ে জর্জরিত অনেক নাগরিক। এঁদের কারও কারও উপর ঝুলছে আদালতের রায়। ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ থাকতে হবে কারাগারে। এমন অসহায় পরিস্থিতির ঋণগ্রস্ত ব্যক্তিদের জন্য তহবিল সংগ্রহের উদ্যোগ নেয় কাতার চ্যারিটি।

পবিত্র রমজানের শুরু থেকে এ পর্যন্ত কাতারে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে দান হিসেবে আসে প্রায় ২ কোটি ৮০ লাখ কাতার রিয়াল। কিন্তু যে ঋণগ্রস্তদেরকে সাহায্য করার জন্য কাতার চ্যারিটির পক্ষ থেকে তালিকা করা হয়েছিল, সেই তালিকার সবাইকে সহায়তা করে ঋণ পরিশোধ করতে হলে আরও প্রয়োজন ২০ কোটি রিয়াল।

এই ২০ কোটি রিয়াল সংগ্রহের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছিল কাতার চ্যারিটি। যাতে এর ফলে অনেককে ঋণের দায়ে কারাগারে থাকতে না হয়। এই খবর পৌঁছে যায় কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আলথানির কাছে।

কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ

আজ ৩ মে সোমবার নাম প্রকাশ না করে কাতারের আমির নিজস্ব তহবিল থেকে এই ২০ কোটি রিয়াল দান করেন কাতার চ্যারিটির তহবিলে। আকস্মিক এমন দানে অবাক হয়ে যান কাতার চ্যারিটির সবাই।

এমন বিপুল অঙ্কের দানের মধ্য দিয়ে কাতার চ্যারিটির লক্ষ্য পূরণ হয়ে যায়। ফলে কিছুক্ষণের মধ্যে বন্ধ ঘোষণা করা হয় দান সংগ্রহ কার্যক্রম।

কাতারের সংবাদমাধ্যমগুলোতে এবং কাতার চ্যারিটির বিবৃতিতে এই দাতার নাম উল্লেখ করা হয়নি। তবে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে জানাজানি হয়ে যায়, এই দাতা অন্য কেউ নয়, তিনি কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আলথানি।

পবিত্র রমজানে ঋণগ্রস্তদের মুখে হাসি ফুটাতে এই বিপুল পরিমাণ অর্থ নাম পরিচয় গোপন রেখে দান করে দিলেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আলথানি। এর ফলে এখন কাতারি নাগরিকদের বুকভরা ভালোবাসা ও দুআয় সিক্ত হচ্ছেন আমির।

,