শারজাহ যেন এক টুকরো বাংলাদেশ

কতো অভিমান, কতো সমালোচনা! হারের যন্ত্রণা সইতে না পেরে টাইগারভক্তদের কতো না আক্ষেপ। এরপরও মাঠে উপস্থিতি কমেনি বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকদের।

গতকাল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচে গোটা শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়াম হয়ে উঠেছিল এক টুকরো বাংলাদেশ। ভক্তদের তিক্ত সমালোচনায় বিরক্ত জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। কিছুদিন আগেই জাতীয় দলের সিনিয়র ক্রিকেটার মুশফিকুর রহীম তাদের আয়নাতে মুখ দেখতে বলেছিলেন।

এরপরও দেশ বলে কথা। টাইগারদের সঙ্গে যতই অভিমান থাকুক দলের সঙ্গ কিভাবে ছাড়া যায়! পতাকা হাতে মাঠে বাংলাদেশ দলের সমর্থক সোহাগ হোসেন বলেন, ‘দেখেন আমাদের দেশের ছেলেরা খেলছে। হ্যাঁ, খারাপ খেললে রাগ হয়, অভিমান হয়।

আবার তারাই তো ভালো খেলে, জিতে আমাদের মন ভরিয়ে দেয়। তাহলে বলেন কিভাবে তাদের (ক্রিকেট দল) একা রেখে আমরা মাঠের বাইরে থাকি। বিদেশের মাটিতে তো তাদের পাশে থাকা আমাদের কর্তব্য। ইনশাল্লাহ আমরা জিতবো, আবারো উল্লাস করবো।’

শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামের দর্শক ধারণক্ষমতা ২৭ হাজার। করোনা মহামারির কারণে আইসিসি ম্যাচের জন্য টিকিট ছেড়েছে ৭০ ভাগ। বলার অপেক্ষা রাখে না গ্যালারিতে আসা দর্শকদের ৯৫ শতাংশই প্রবাসী বাংলাদেশি।

এছাড়াও দেশ থেকে বিশ্বকাপ দেখার জন্য এসেছেন এমন সমর্থকের সংখ্যাও কম নয়। টাইগারদের খেলা দেখতে বাংলাদেশ থেকে এসেছেন তিন বন্ধু হাবিবুর রহমান, সুমন চৌধুরী ও জালাল হোসেন। তারা সবাই পুরান ঢাকার বাসিন্দা।

সুপার টুয়েলভে দল দুই ম্যাচ হারলেও তারা দেশে বসে থাকেননি। সুমন চৌধুরী বলেন, ‘হারজিত তো থাকবেই ওরা ভালো খেলবে আমরা তালি দিবো। আবার খারাপ খেললে সমালোচনা করবো। কারণ আমরা বাংলাদেশকে ভালোবাসি, টাইগারদের ভালোবাসি।’

,