হিজাব পরা নারীকে ঢুকতে না দেয়ায় বন্ধ করে দেওয়া হলো ইন্ডিয়ান রেস্টুরেন্ট

কর্ণাটকের হিজাব কাণ্ড পৌঁছে গেল মধ্যপ্রাচ্যের দেশ বাহরাইনে। সেখানে হিজাব পরে ভারতীয় এক রেস্তরাঁয় গিয়েছিলেন এক নারী। কিন্তু তাকে ঢুকতেই দেয়নি রেস্তরাঁ কর্তৃপক্ষ।

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ন্যাশনাল জানিয়েছে, হিজাব পরিহিত নারীকে ঢুকতে না দেয়ায় তিন দশক পুরোনো ওই ভারতীয় রেস্তরাঁ বন্ধ করে দিয়েছে বাহরাইনের পর্যটন মন্ত্রণালয়।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ১৯৮৭ সাল থেকে বাহরাইনের আদলিয়ায় ব্যবসা করছে ওই ভারতীয় রেস্তরাঁ। এলাকায় বেশ সুনামও রয়েছে। কিন্তু হিজাব পরিহিতা এক নারীকে রেস্তরাঁয় ঢুকতে বাধা দেন ম্যানেজার। এর পরই সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। শুরু হয় তীব্র সমালোচনা।

এ ঘটনায় চুপ থাকেনি বাহরাইনের ট্যুরিজম অ্যান্ড এক্সজিবিশন অথোরিটি (বিটিইএ)। বন্ধ করে দেয়া হয় রেস্তরাঁটি। শুরু হয় তদন্ত। পাশাপাশি, অন্যান্য রেস্তরাঁকে দেশের নিয়ম মেনে চলারও পরামর্শ দেয়া হয়।

বিটিইএ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মানুষের মধ্যে ভেদাভেদ সৃষ্টি করে কিংবা নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়ের পরিপন্থী; আমরা এমন যেকোন ঘটনার বিপক্ষে। তাই সকলকে দেশের নিয়ম মেনে চলার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

এর পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে ক্ষমা চায় রেস্তরাঁ কর্তৃপক্ষ। দুঃখপ্রকাশ করে তারা লেখে, ‘তদন্তের ভিত্তিতে আমাদের ডিউটি ম্যানেজারকে সাসপেন্ড করেছি।

তার ভুলেই এটা ঘটেছিল। গত ৩৫ বছর ধরে গ্রাহকদের পরিষেবা দিচ্ছি আমরা। আমাদের রেস্তরাঁয় সকলকে সাদর আমন্ত্রণ। তাদের অ্যাপায়ন করতে আমরা সর্বদা তৈরি। ২৯ মার্চ বাহরাইনের নাগরিকদের জন্য বিনামূল্যে প্রাতঃরাশের ব্যবস্থাও করেছি আমরা।’

তবে বন্ধ হওয়ার পর এমন বার্তায় মন গলেনি বাহরাইন কর্তৃপক্ষের। রেস্তরাঁটির বিরুদ্ধে তদন্ত জারি রাখার সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে দেশটির পর্যটন মন্ত্রণালয়।

কাতারের সব খবর হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে পেতে এখানে ক্লিক করে যুক্ত হোন গালফ বাংলা গ্রুপে

কাতারের আরও খবর

চ্যানেল২৪

Loading...
,