মঙ্গলবার ২৬শে মে ২০২০ |

পলাশীর প্রান্তরে সিরাজউদৌল্লাহকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক |  শনিবার ২৪শে জুন ২০১৭ সন্ধ্যা ০৭:৫৮:৫২

গালফ বাংলা: ২৩ জুন ঐতিহাসিক পলাশী দিবস। ১৭৫৭ সালের পলাশী যুদ্ধের দিনটির স্মরণে গতকাল সেই পলাশীর প্রান্তরে উদ্‌যাপিত হলো এ ঘটনার ২৬০ বছর পূর্তি উৎসব।


২৩ জুন তারিখেই পশ্চিমবঙ্গের নদীয়ার পলাশীর প্রান্তরে বাংলার শেষ স্বাধীন নবাব সিরাজউদৌল্লাহর শাসনের অবসান ঘটে। প্রধান সেনাপতি মীরজাফর আলি খানের ষড়যন্ত্রে ইংরেজ বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধে পরাজিত হয়েছিলেন নবাব সিরাজ।


সেই পলাশীর প্রান্তরে সেদিনের সেই যুদ্ধের স্মৃতিকে স্মরণে রাখার জন্য তৈরি হয়েছে স্মৃতিস্মারক। বসানো হয়েছে নবাবের আবক্ষ মূর্তি। গতকাল সকালে তাতে পুষ্পমাল্য অর্পণের মাধ্যমে দিনটির সূচনা হয়।


প্রতিবারের মতো আজাদ হিন্দ স্বেচ্ছাসেবক পরিষদ সিরাজের ভাস্কর্যে ফুল দিয়ে দিনটির সূচনা করেন। তারা বকসী মীর মদনের স্মৃতিস্তম্ভেও পুষ্পমাল্য দেন।


এ সময় আরও ছিল বাংলাদেশ-ভারত-পাকিস্তান পিপলস ফোরামের বিশেষ অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানে পলাশীর যুদ্ধ, সিরাজের অবদান এবং মীরজাফরের বিশ্বাসঘাতকতা নিয়ে আলোচনা করেন ফোরামের পশ্চিমবঙ্গ এবং মুর্শিদাবাদ জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ।


গতকাল সকালে অনুষ্ঠানের আলোচক সাবেক সাংসদ দেবব্রত বিশ্বাস ও মানিক সমজদার প্রথম আলোকে বলেন, নবাব সিরাজের আত্মদান আর মীরজাফরের বিশ্বাসঘাতকতার চিত্র তুলে ধরতে এবং নবাবের অবদানকে অমর করে রাখার জন্য পলাশী প্রান্তরে আয়োজন করা হয় এ বিশেষ অনুষ্ঠানের।


মুর্শিদাবাদের খোশবাগে চিরনিদ্রায় শুয়ে আছেন নবাব সিরাজউদৌল্লাহ। গতকাল সেখানেও তাঁর সমাধিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।



//এইচএন

গালফবাংলায় প্রকাশিত যে কোনো খবর কপি করা অনৈতিক কাজ। এটি করা থেকে বিরত থাকুন। গালফবাংলার ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।
খবর বা বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: editorgulfbangla@gmail.com

সৌজন্যে: প্রথম আলো

সংশ্লিষ্ট খবর