সোমবার ১লা জুন ২০২০ |

কাতারে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ প্রদর্শনী

 বৃহঃস্পতিবার ১৬ই জানুয়ারী ২০২০ দুপুর ০২:৪০:১৪
কাতারে

কাতারে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ শিরোনামে প্রদর্শণী অনুষ্ঠিত হবে

কাতারের রাজধানী দোহায় বসছে বাংলাদেশি পণ্যের একক প্রদর্শনী। আগামী ২৮ থেকে ৩০ জানুয়ারি এ প্রদর্শনী বসবে বিশ্বখ্যাত দোহা এক্সিবিশন অ্যান্ড কনভেনশন সেন্টারে (ডিইসিসি)।

‘মেড ইন বাংলাদেশ’ শিরোনামে বাংলাদেশ ফোরাম কাতার এবং কাতারস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর যৌথ উদ্যোগে এ আয়োজন করা হবে।

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম তেল ও গ্যাস সমৃদ্ধ দেশ কাতারের মধ্যবর্তী বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য রপ্তানি পণ্যের বাজার তৈরির লক্ষ্যে এ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ ফোরাম কাতারের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইফতেখার আহমদ আমাদের সময়কে বলেন, ‘এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে কাতার-বাংলাদেশ আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য আরও শক্তিশালী হবে। প্রায় ৪ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি কাতারে কর্মরত। তারা এখানে বাংলাদেশি বাজার তৈরি করতে সাহায্য করবে। প্রদর্শনীর মাধ্যমে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা নিজেদের প্রস্তাবগুলো তুলে ধরতে পারলে দেশে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ বাড়বে এবং দেশে ব্যবসার নতুন দ্বার উন্মোচন হবে।’

ইফতেখার আহমদ আরও বলেন, ৩ দিন ব্যাপী এ প্রদর্শনীর পাশাপাশি কয়েকটি আলোচনা সভাও অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া বাংলাদেশি খাবার উপস্থাপন, ফ্যাশন শো ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা থাকবে। প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের কৃষি, ব্যাটারি, তার ও বিদ্যুৎ, সিমেন্ট, সিরামিক, তৈরি পোশাক, তথ্যপ্রযুক্তি, খাদ্য ও পানীয়, মৎস্য ও মাংস, আসবাব, চামড়া, আবাসন, প্লাস্টিক, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য, জাহাজ নির্মাণ, বস্ত্র ও পাট, প্রসাধন এবং পর্যটন সেবাদাতা কোম্পানিগুলো তাদের পণ্য প্রদর্শন করবেন বলে আশা করছেন তিনি।

উপসাগরীয় দেশ কাতার, সৌদি আরব, বাহরাইন, আরব আমিরাত ও কুয়েত এ বাংলাদেশি শ্রমিক ও গৃহপরিচারিকা (খাদ্দামা) সরবরাহকারী দেশ হিসেবে পরিচিত। অথচ দেশে প্রচুর দক্ষ জনশক্তি এবং রপ্তানি পণ্য থাকলেও ইতিবাচক প্রচারণার অভাবে মধ্যপ্রাচ্যের নীতিনির্ধারকদের কাছে সে খবর যাচ্ছে না। তাই মধ্যপ্রাচ্যের প্রতিটি দেশে মেড ইন বাংলাদেশ- প্রদর্শনী আয়োজন করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

গালফবাংলায় প্রকাশিত যে কোনো খবর কপি করা অনৈতিক কাজ। এটি করা থেকে বিরত থাকুন। গালফবাংলার ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।
খবর বা বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: editorgulfbangla@gmail.com

সূত্র:- দৈনিক আমাদের সময়

সংশ্লিষ্ট খবর