শুক্রবার ২৭শে নভেম্বর ২০২০ |

পণ্য বয়কট বন্ধ কতে আরবদের প্রতি ফ্রান্সের মিনতি

 সোমবার ২৬শে অক্টোবর ২০২০ দুপুর ০১:৪৫:৩৭
পণ্য

প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাঁক্রর মন্তব্যের জের ধরে ফরাসি পণ্য বর্জন না করতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোকে আহ্বান জানিয়েছে দেশটি। 

এর আগে ম্যাঁক্র ইসলামের নবীর কার্টুন দেখানের পক্ষে সাফাই দিয়েছিলেন।

ফরাসি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, উগ্র সংখ্যালঘুদের পক্ষ থেকে এই বয়কটের 'ভিত্তিহীন' ডাক দেয়া হয়েছে। কুয়েত, জর্ডান এবং কাতারের কিছু কিছু দোকান থেকে ফরাসি পণ্য সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

এছাড়া লিবিয়া, সিরিয়া এবং গাজা উপত্যকায় বিক্ষোভও দেখা গিয়েছে। শ্রেণীকক্ষে ইসলামের নবীর কার্টুন দেখানোর পর এক শিক্ষককে হত্যার ঘটনায় মি. ম্যাঁক্রর মন্তব্যের পর এই প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়।

প্রেসিডেন্ট বলেন যে, স্যামুয়েল পাটি নামের ওই "শিক্ষক খুন হয়েছিলেন কারণ ইসলামপন্থীরা আমাদের ভবিষ্যৎ চায়", কিন্তু ফ্রান্স "আমাদের কার্টুন ছাড়বে না"। ইসলামের নবীর চিত্রাঙ্কন মুসলিমদের জন্য গুরুতর আপত্তির জায়গা হয়ে ওঠার কারণ হচ্ছে, ইসলামী ঐতিহ্য অনুযায়ী মুহাম্মদ এবং আল্লাহর প্রতিকৃতি তৈরি কঠোরভাবে নিষেধ করা হয়েছে।

কিন্তু ফ্রান্সে জাতীয় পরিচয়ের অন্যতম অংশ হচ্ছে ধর্মনিরপেক্ষতা বা "লেইসিতে"। কোন নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের অনুভূতির রক্ষার জন্য বাক-স্বাধীনতা কমিয়ে আনা হলে তা জাতীয় ঐক্য কমিয়ে আনবে বলে জানানো হয়।

রবিবার, মি. ম্যাক্রঁ এক টুইটে ফরাসি মূল্যবোধের প্রতি পক্ষে তিনি বলেন, "আমরা কখনোই এটা বিসর্জন দেবো না।"

তুরস্ক এবং পাকিস্তানের রাজনৈতিক নেতারা ম্যাক্রঁর প্রতি ক্ষোভ জানিয়ে অভিযোগ তুলেছেন যে তিনি "বিশ্বাসের স্বাধীনতা" কে কদর করছেন না এবং ফ্রান্সের লাখ লাখ মুসলিমদের কোণঠাসা করছেন।

রবিবার, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তায়েপ এর্দোয়ান বলেন, ইসলামের প্রতি মি. ম্যাক্রঁর দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টাতে তার মানসিক চিকিৎসা দরকার। শনিবার একই মন্তব্যের জন্য তুরস্কে থাকা ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছিল দেশটি।

বয়কট কতদূর গড়িয়েছে?

রবিবার জর্ডান, কাতার ও কুয়েতের অনেক দোকানের তাক থেকে সরিয়ে নেয়া হয় ফরাসি পণ্য। ফ্রান্সে তৈরি হওয়া চুল এবং সৌন্দর্য পণ্য ডিসপ্লে-তে রাখা হয়নি।

কুয়েতে প্রধান একটি রিটেইল ইউনিয়ন ফরাসি পণ্য বয়কটের ঘোষণা দিয়েছে।

বেসরকারি ইউনিয়ন অব কনজ্যুমার কো-অপারেটিভ সোসাইটি বলে,ইসলামের নবীকে "বার বার অসম্মান" করার কারণে তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এক বিবৃতিতে ফরাসি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই সিদ্ধান্তের কথা স্বীকার করে লিখেছে: "বয়কটের এই ডাক ভিত্তিহীন এবং অবিলম্বে বাতিল করা উচিত। সেই সাথে আমাদের দেশের বিরুদ্ধে উগ্র সংখ্যালঘুদের পরিচালিত সব হামলাও বন্ধ করা উচিত।"

বিভিন্ন আরব দেশ যেমন সৌদি আরবে অনলাইনে এ ধরণের বয়কটের আহ্বান জানানো হচ্ছে। আরব বিশ্বের সবচেয়ে বড় অর্থনীতির দেশ সৌদি আরবে ফরাসি সুপারমার্কেট চেইন শপ "ক্যাফৌউ" বয়কট করা নিয়ে হ্যাশট্যাগ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ট্রেন্ডিং ইস্যু হিসেবে উঠে এসেছে।

এদিকে, লিবিয়া, গাজা এবং উত্তর সিরিয়ার তুরস্ক সমর্থিত সশস্ত্র বাহিনীর নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে ফরাসি বিরোধী ছোট ছোট বিক্ষোভও অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ফ্রান্স কিভাবে এই বিতর্কে জড়ালো?

মি. পাটির হত্যার পর ইসলামের নামে উগ্রতার বিপক্ষে এবং ফরাসি ধর্মনিরপেক্ষতার পক্ষে মি. ম্যাক্রঁর অবস্থান মুসলিম বিশ্বের অনেকেরই ক্ষোভের কারণ হয়েছে।

তুরস্কের মি. এরদোয়ান এক বক্তব্যে বলেন: "ইসলাম এবং মুসলিমদের নিয়ে ম্যাক্রঁর মতো ব্যক্তিদের কী সমস্যা?"

এর মধ্যে পাকিস্তানের নেতা ইমরান খান ফরাসি নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন যে তিনি "কোন কিছু না বুঝেই তিনি ইসলামকে আক্রমণ করছেন"।

এক টুইটে তিনি বলেন, "প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রঁ ইউরোপ এবং পুরো বিশ্বে থাকা মুসলিমদের অনুভূতিকে আঘাত করেছেন।"

চলতি মাসের শুরুর দিকে, ওই শিক্ষকের হত্যার আগেই মি. ম্যাক্রঁ ফ্রান্সে "মুসলিম বিচ্ছিন্নতাবাদীদের" রুখতে কঠোর আইন তৈরির পরিকল্পনা ঘোষণা করেন।

তিনি ইসলামকে "সংকটে" থাকা ধর্ম উল্লেখ করে বলেন, ফ্রান্সের প্রায় ৬০ লাখ মুসলিম "কাউন্টার সোসাইটি" তৈরির চিন্তা করছে।

ফ্রান্সে ইসলামের নবীর প্রতিকৃতি আঁকার অন্ধকার রাজনৈতিক ইতিহাস রয়েছে।

২০১৫ সালে তার কার্টুন প্রকাশের পর ফরাসি ব্যঙ্গ-পত্রিকা শার্লি এবদোর ১২ জন এক হামলার মারা গিয়েছিল।

পশ্চিম ইউরোপের মুসলিম সম্প্রদায় মি. ম্যাক্রঁর বিরুদ্ধে তাদের ধর্মকে দাবিয়ে রাখার অপচেষ্টা এবং তার এই প্রচারণা ইসলামোফোবিয়াকে বৈধতা দেয়ার ঝুঁকি তৈরি করবে বলে অভিযোগ করেন।

১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কাতারে হোটেল কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক

কাতারের সব খবর পেতে আজই লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন এই পেজে

কাতারের আরও খবর

কাতারে মানবিকতার পুরস্কারে ভূষিত বাংলাদেশি তরুণ

কাতারে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে ফ্রান্সের তৈরি পণ্য (ভিডিও)

কাতারে আধুনিকতা ও উন্নয়নের নেপথ্য কারিগর যে নারী

কাতারে ফেরত আসা ৩৩ জন একদিনে করোনায় আক্রান্ত

কাতারে গরমকালে শ্রমিকদের কাজের সময় পরিবর্তনে নতুন আইন

কাতার এয়ারওয়েজে চাকরির ভুয়া বিজ্ঞাপন থেকে সাবধান

কাতারে ভিলায় অবস্থিত গোপন কারখানা জব্দ

কাতারে সব পার্কে প্রবেশের ফি নির্ধারণ

এলএনজির উৎপাদন বাড়াতে মরিয়া কাতার

সম্পত্তি কিনলে কাতারে থাকতে পারবেন বিদেশিরা

কাতারে চুরির অভিযোগে আরব আটক

অন্যান্য খবর

ওমানে নতুন সিদ্ধান্ত, কর্মহীনের আশঙ্কা লাখো প্রবাসীর

কুয়েতে নতুন আইন;বাংলাদেশিদের কি হবে!

প্রবাসীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা, তদন্তের নির্দেশ

অস্ত্র ঠেকিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ, যুবলীগ সভাপতি গ্রেপ্তার

স্পেনে মানবসেবায় সম্মাননা পেলেন ১৭ বাংলাদেশি

দেশে ফেরার পথে বিমানেই প্রাণ গেল কুয়েত প্রবাসীর

গালফবাংলায় প্রকাশিত যে কোনো খবর কপি করা অনৈতিক কাজ। এটি করা থেকে বিরত থাকুন। গালফবাংলার ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন।
খবর বা বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: editorgulfbangla@gmail.com

কাতার,কাতারের খবর,কাতার প্রবাসী,দোহা,দোহার খবর,আজকের কাতার,আজকের দোহা,কাতারের দোহা,দোহার নিউজ,কাতারের সংবাদ,কাতার প্রবাসীদের খবর,Qatar,Doha,Qatar News,Doha News,Today Qatar News,Qatar Bangladesh,Qatar Bangla News,Doha Bangla News,প্রবাস,প্রবাসীর খবর,প্রবাসের খবর

সংশ্লিষ্ট খবর